ফিজিওথেরাপি কি?

ফিজিওথেরাপি একটি ইংরেজি শব্দ। এখানে ফিজিও মানে হচ্ছে শারিরীক আর থেরাপি অর্থ এক ধরনের চিকিৎসা পদ্ধতি। অর্থাৎ ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা বিজ্ঞানের একটি বিশেষ চিকিৎসা পদ্ধতি যার বিজ্ঞান সম্মত ভিত্তি আছে এবং যে চিকিৎসায় রোগী সুস্থ হয়ে কাজে ফিরে যেতে পারে।

শারিরীক সুস্থতার অপরিহার্য শাখা হচ্ছে ফিজিওথেরাপি। চিকিৎসা বিজ্ঞানের একটি বড় অংশ রিহ্যাবিলিটেশন বা পুনর্বাসন। আর এই পুনর্বাসনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে একজন ফিজিওথেরাপিস্ট। বর্তমানে সারা বিশ্বে এ বিষয়টি এতই সমাদৃত হয়েছে যে, মানুষ ব্যথা হলে ফিজিওথেরাপিস্টের সাথে যোগাযোগ করেন। পেশাগত উন্নতির জন্য অনেকের মধ্যে যে সংস্থাটি বেশি কাজ করে আসছে সেটি হল-ওয়ার্ল্ড কনফেডারেশন ফর ফিজিক্যাল থেরাপী, সংক্ষেপে একে বলে ডাব্লিউসিপিটি।

এদের মতে ফিজিওথেরাপি এমন একটি চিকিৎসা পদ্ধতি যা রোগীর সার্বিক অবস্থার উন্নতি সাধন করে, যথাপোযুক্ত চলন ক্ষমতা ও কর্মদক্ষতা আনয়ন করে এবং সারাজীবন এই অবস্থার ধারাবাহিকতা সচল রাখতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

ফিজিওথেরাপি কেন প্রয়োজন?

মানুষ যত দিন বাঁচে ততদিনই সুস্থ থাকতে চায়। কিন্তু দেহ আছে বলেই তো রোগের উৎপত্তি। রোগ হওয়ার পরেই তো মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়ে আর তাই তার দরকার হয় সুস্থতার। সুস্থতার সন্ধানে মানুষ এমনভাবে দৌড়ায় যে তাকে যখন যেখানে যেতে বলা হবে সে তখন সেখানেই যায়। ফিজিওথেরাপী যেহেতু একটি বিজ্ঞান সম্মত চিকিৎসা পদ্ধতি তাই মানুষের রোগ নির্ণয় সহ অন্যান্য সুস্থতার পেছনে ফিজিওথেরাপিস্টগণ অনেক ভূমিকা রাখেন।

যান্ত্রিক জীবনে মানুষ যখন নিজেকে যন্ত্রের মত ব্যস্ত রাখে, স্বভাবতই তার যান্ত্রিক জীবনে দুঘটনা একটি নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার, তাই মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে হাড়, জোড়া, মাংসপেশী, নার্ভ টেনটন, লিগামেন্ট, বাত ব্যথা, প্যারালাইসিস সহ বিভিন্ন আঘাত জনিত সমস্যায়। এই সকল সমস্যা থেকে পুরোপুুরি নিজেকে সুস্থ্য করতে অবশ্যই ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা অপরিহার্য।

ফিজিওথেরাপি যেহেতু চিকিৎসা বিজ্ঞানের অঙ্গ তাই একজন ফিজিওথেরাপিস্টকে জানতে হয় স্বাস্থ্য বিজ্ঞানের প্রায় অনেক বিষয়ে। এরা অ্যানাটমি, ফিজিওলজি, প্যাথলজি, সাইকোলজি, ফার্মাকোলজি, কাইলোসিওলজী, অর্থোপেডিক্স, রিউমাটোলজি সমন্ধে যথেষ্ট জ্ঞান রাখেন আর এই জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে একজন রোগীকে বন্ধু সুলভ আচরণ করে পুরোপুরি সুস্থ করে তোলেন একজ ফিজিওথেরাপিস্ট।

একজন ব্যথার রোগীর কথাই ধরা যাক, সে ব্যাথার জন্য দিনের পর দিন কষ্ট করে আসছে। কিছু রোগী বলে, স্যার ঔষধ খেলে ভাল থাকি আর ঔষধ বন্ধ করলে ব্যথা আবার আগের মত চলে আসে। তার মানে রোগীর মেকানিক্যাল সমস্যার কারণে ব্যথা হচ্ছে। এ সমস্ত রোগীগুলো ম্যানুয়াল ও ম্যানুপুলেশন থেরাপী নিয়ে অনেক তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে যাচ্ছে। বিশ্বের অনেক দেশেই ফিজিওথেরাপিস্ট ফাস্ট কন্টাক প্র্যাকটিশনার হিসাবে কাজ করে আসছে।

আমাদের দেশে প্যারালাইসিস রোগীর কথা একবার ভাবেন। ষ্ট্রোক করার পর তাকে চিকিৎসায় দেয়া হয় ঔষধের মাধ্যমে যাতে করে তার মেডিক্যাল স্ট্যাবিলিটি ফিরে আসে অর্থাৎ তার রক্তচাপ, পালর্স, শরীরের তাপমাত্রা ইত্যাদি সঠিক পরিমাপে আসলে, রোগী পরবর্তীতে একই সমস্যা হওয়ার সম্ভবনা কম থাকে। কিন্তু রোগীর এক পাশের প্যারালাইসিস অংশ নাড়াচাড়া করতে কষ্ট হয়। অথবা অনেকে পারেই না।

আমাকে একদিন এক রোগী বলছে স্যার, হায়রে কপাল আমার, নিজের হাত নিজের কথা শোনে না। এর মানে হচ্ছে ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও রোগী তার হাত পা নাড়াতে পারছে না। এমতাবস্থায় একজন ফিজিওথেরাপিস্ট বিজ্ঞান সম্মত উপায়ে আস্তে আস্তে হাত ও পায়ের শক্তি বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের ব্যায়াম করে থাকেন। তারপর দেয়া হয় শরীরের ভারসাম্যের প্রশিক্ষণ ও হাঁটার শিক্ষা যা রোগীকে স্বনির্ভর করে। হাতের ক্ষেত্রেও যত্ন নেয়া হয় ফাংশনাল কাজকর্মের।  

সবার জীবনে বার্ধক্য হচ্ছে অবধারিত আর এ সময় সে বিভিন্ন ব্যথায় আক্রান্ত হয়। দেখা দেয় শারীরিক দুর্বলতা। এসব অসহায় মানুষের সুস্থতার জন্য ফিজিওথেরাপির গুরুত্ব খুবই। উন্নত বিশ্বে এমন সুযোগ সুবিধা সবাই পায় কারণ বৃদ্ধ বয়সে প্রায় প্রত্যেকেই পুনর্বাসন কেন্দ্রে থেকে চিকিৎসা নিয়ে থাকে। একজন মানুষ অসুস্থ হওয়ার পরে যদি ভাল চিকিৎসা নেয় তাহলে সে উক্ত সমস্যা থেকে মুক্তি পাবে।

তবে যদি সে সেই সমস্যা কাটিয়ে আগের কাজে ফিরে আসতে না পারে, তাহলে সেই চিকিৎসা পরিপূর্ণ হল না। যেমন একজন লোকের হাত বা পায়ে আঘাত পেয়েছে। আঘাতের জন্য তাকে অপারেশন করতে হলো। সে অপারেশন করেও ফেললেন কিন্তু অপারেশনের পর সেই লোকটি হাত দিয়ে আগের মত কাজ করতে পারে না বা হাঁটু ভাঁজ করে বসতে পারে না। উক্ত রোগীর সঠিক সময়ে সঠিক ভাবে পুনর্বাসন করা হয় নি বলে সে আর আগের অবস্থায় ফিরে যেতে পারল না।

তাই একজন রোগীর পুরোপুরি চিকিৎসা সহ পুনর্বাসন করতে দরকার একটি মেডিক্যাল টিম, যে টিমে চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত থাকবে সবাই। দুঃখের বিষয় হল, আমাদের দেশে অনেক বড় বড় বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসা ডিসিপ্লিনারী টিমে ফিজিওথেরাপিস্ট নাই। যার ফলে একজন রোগীর সঠিক চিকিৎসায় একটি বড় অংশ বাদ পরে যাচ্ছে।

কারণ একটি মাল্টিডিসিপ্লিনারী টিমে থাকা একজন ফিজিওথেরাপিস্ট বিভিন্নভাবে এ্যাসেসমেন্ট করে রোগীর মানসিক ও শারীরিক অবস্থার উন্নতি করে, যা রোগীকে পুরোপুরি সুস্থ হতে সহায়তা করে। তাই বলা যায় একজন বিশেষজ্ঞ ফিজিওথেরাপিস্ট তার দক্ষতা দিয়ে যে ফিজিওথেরাপি প্রদান করে তা রোগীর জন্য একান্ত জরুরী।

Follow me
পরামর্শ নিতে 01975451525