fbpx

বার্সা হল থলির মতো কাঠামো যেখানে শরীরের বিভিন্ন জয়েন্টের মোভমেন্টের পাশাপাশি ঘর্ষণ হয়- যেমন টেন্ডন এবং হাড়ের মধ্যকার বার্সা। যখন খুব বেশি ঘর্ষণ হয়, তখন বার্সা বিরক্ত হয় এবং স্ফীত হয়, যার ফলে সোল্ডার বার্সাইটিস হয়।

এটি এমন একটি অবস্থা যা সাধারণত ব্যথা এবং কখনও কখনও লালভাব এবং ফোলা দ্বারা চিহ্নিত করা হয়। বার্সা হল একটি খুব পাতলা (অর্থাৎ, কয়েক কোষ পুরু), থলির মতো কাঠামো যার উপর ঘর্ষণ হতে পারে, যেমন ত্বক এবং হাড়ের মধ্যে, টেন্ডন এবং হাড়ের মধ্যে বা লিগামেন্ট এবং হাড়ের মধ্যে অবস্থিত। অন্য কথায়, তারা শক্ত হাড় এবং নরম টিস্যুর মধ্যে ঘর্ষণ কমাতে কাজ করে। একটি ভাল উপমা হল একটি টেবিলের কোণে চামড়া ঘষা – সময়ের সাথে সাথে, আপনি আপনার চামড়ার মধ্যে একটি গর্ত দেখতে পাবেন। স্কিন, টেন্ডন এবং লিগামেন্ট একইভাবে ক্ষয়ে যাবে যদি তাদের এবং হাড়ের উপরিভাগের মধ্যে কোন বার্সা না থাকে। ফলে শরীরে যেখানেই ঘষার সম্ভাবনা থাকে সেখানে বার্সা আছে  আর আমাদের শরীরে এরকম প্রায় দেড় শতাধিক বারস আছে।   

আপনার সারা শরীরে বার্সা নামক তরল দিয়ে ভরা ছোট ছোট থলি রয়েছে। এগুলি আপনার হাড় এবং আপনার শরীরের চলমান অংশ যেমন পেশী এবং টেন্ডনের মধ্যে পাতলা কুশন হিসাবে ও কাজ করে। যদি একটি বার্সা ফুলে যায় এবং এটির মধ্যে যতটুকু তরল থাকার দরকার যদি চেয়ে বেশি তরল দিয়ে এটি পূর্ণ হয়, তাহলে এই অবস্থার সৃষ্টি হয় যাকে আমরা বার্সাইটিস বলে থাকি। এটি প্রায়শই আপনার কাঁধ, নিতম্ব, কনুই এবং হাঁটুর মতো জয়েন্টগুলির মধ্যে দেখা যায়।  

আরও পড়ুনঃ ফ্রোজেন শোল্ডার ও ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা

সাধারণত তিন ধরনের বার্সাইটিস হয়

  • ক্রনিক বারসাইটিস
  • সংক্রামিত বারসাইটিস এবং
  • ট্রমাটিক বারসাইটিস
সোল্ডার বার্সাইটিস এর কারণ

সোল্ডার বার্সাইটিস এর কারণঃ

বারসাইটিস হওয়ার বিভিন্ন উপায় রয়েছে, তবে এই অবস্থাটি সাধারণত বার্সার উপর অত্যধিক চাপের কারণে হয়। সাধারণত বার্সাইটিস মোটামুটিভাবে তিনটি গ্রুপে বিভক্ত করা যেতে পারে।

প্রথমটি হল ক্রনিক বার্সাইটিস এটি বিভিন্ন কারণের কারণে হতে পারে। এই প্রকারটি সবচেয়ে সাধারণ এবং বার্সার পুনরাবৃত্তিমূলক ঘষার কারণে সময়ের সাথে সাথে এটি বিকাশ লাভ করে। বেশিরভাগ লোক যাদের পুনরাবৃত্তিমূলক বা একই কাজ বারবার করার বা ঘষার সমস্যা নেই তাদের ক্ষেত্রে কোন আপাত কারণ ছাড়াই ঘটে। তখন ধারনা করা হয় এটি একটি মেডিকেল অবস্থার কারনে হয়েছে। আর সেই সমস্যা গুলোর মধ্যে – গাউট, সিউডোগআউট, ডায়াবেটিস, রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস, আর্থ্রাইটিস, ইউরেমিয়া, থাইরয়েড এবং অন্যান্য অবস্থা।

দ্বিতীয়টি হল সংক্রামিত বার্সাইটিস, এটি একটি গুরুতর প্রকার হিসাবে ধারনা করা হয়, যেখানে বার্সা ব্যাকটেরিয়া দ্বারা সংক্রমিত হয়। আর এই সংক্রমণটি ছড়িয়ে পড়লে মারাত্মক সমস্যার দেখা দেয়।

তৃতীয়টি হল ট্রমাটিক বারসাইটিস যা ক্রীড়াবিদদের মধ্যে দেখা যায়, এটি সাধারনত তীব্র আঘাতমূলক কর্মকান্ডের করনে হয়। উপরের বর্নিত তিনটি প্রকারের মধ্যে, এটি সর্বনিম্ন সাধারণ প্রকার বলা হয়ে থাকে। যা একটি শক্ত পৃষ্ঠের বিরুদ্ধে পুনরাবৃত্ত ঘষা বা জয়েন্টের অত্যধিক নমনীয়তার কারণে হয়।

আরও পড়ুনঃ নিউরোপ্যাথি কি, নিউরোপ্যাথির লক্ষণ এবং চিকিৎসা

সোল্ডার বার্সাইটিস

আপনার কাঁধ বা সোল্ডার বার্সাইটিস হওয়ার একটি সাধারণ জায়গা। প্রত্যেকের কাঁধের সাবক্রোমিয়াল বার্সা একদল পেশী এবং টেন্ডনকে কাজ করতে সাহায্য করে যার মধ্যে রোটেটর কাফ অন্যতম। যদি এটি ফুলে যায় তবে আপনার সাবঅ্যাক্রোমিয়াল বারসাইটিস আছে। আর রোটেটর কাফ যে সকল ম্যাসেল থাকে সে গুলো হলো- সুপ্রাসপাইণেটাস, ইনপ্রাসপাইনেটাস, টেরিসমাইনর, সাবস্কাপুলারিস।  

কাঁধের বার্সাইটিস হল সবচেয়ে সাধারণ ধরনের বার্সাইটিস। এটি ঘটে যখন অতিরিক্ত তরল বার্সা, জয়েন্টে হাড় এবং টিস্যুর মধ্যে কুশনিং প্যাড তৈরি হয়। যা হাড় এবং সংযোজক টিস্যুর মধ্যে স্থান কুশন করে, টেন্ডন, পেশী এবং হাড়কে একসাথে চলতে দেয়। কাঁধে, সাবঅ্যাক্রোমিয়াল বার্সা রোটেটর কাফ টেন্ডন এবং অ্যাক্রোমিয়ন (কাঁধের ব্লেড বা স্ক্যাপুলার সর্বোচ্চ বিন্দু) এর মধ্যবর্তী স্থানটিকে কুশন করে। আপনি যখন আপনার বাহু নড়াচড়া করেন এবং উত্তোলন করেন তখন  বার্সা টেন্ডন এবং হাড়গুলিকে ঘর্ষণ ছাড়াই গ্লাইড করতে দেয়।  আঘাত বা অত্যধিক ব্যবহারের কারণে বার্সাতে তরল জমা হতে পারে, যার ফলে বারসাইটিস হতে পারে। বেদনাদায়ক ফোলা ধীরে ধীরে বা হঠাৎ আসতে পারে। স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীরা কাঁধকে প্রভাবিত করে এমন বার্সাইটিস বোঝাতে চিকিৎসা শব্দটি সাবক্রোমিয়াল বার্সাইটিস বা রোটেটর কাফ টেন্ডিনাইটিস ব্যবহার করতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ ফুট ড্রপের কারণ এবং এর প্রতিকার

সোল্ডার বার্সাইটিসের লক্ষণ

সোল্ডার বার্সাইটিসের লক্ষণঃ

বার্সাইটিসের লক্ষণগুলি ধরন এবং তীব্রতা অনুসারে পরিবর্তিত হয় তবে এর মধ্যে-

  • ফোলাভাব, দীর্ঘস্থায়ী বার্সাইটিসে, ফোলা সবচেয়ে স্পষ্ট লক্ষণ
  • সাইটে অতিরিক্ত উষ্ণতা
  • লালচে ভাব
  • কোমলতা
  • শক্ত শক্ত ভাব অনুভব করা
  • ব্যথা
  • নাড়াচাড়া, মোভমেন্ট করানো এবং চাপে ব্যথার আর্বিভাব হয়
  • জ্বর অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে।

আরও পড়ুনঃ ফ্ল্যাট ফুটের কারণ ও এর প্রতিকার

 সোল্ডার বার্সাইটিস বুঝার উপায়ঃ

উপসর্গগুলি কখনও কখনও এক ধরণের যা অন্য কোন সমস্যা নির্দেশ করে, তবে পার্থক্য করা প্রায়শই কঠিন হয়ে পড়ে। এটি বিশেষত ক্ষেত্রে যখন একটি সংক্রামিত সোল্ডার বার্সাইটিস থেকে দীর্ঘস্থায়ী সোল্ডার বার্সাইটিস আলাদা করার চেষ্টা করা হয়। দীর্ঘস্থায়ী সোল্ডার বারসাইটিস ফুলে যায় তবে সংক্রামিত সোল্ডার বার্সাইটিস লালচেভাব, প্রদাহ, জ্বর এবং ব্যথা দেখ যায়। এই উপসর্গ দেখা দিলেই ডাক্তার বা একজন ফিজিওথেরাপিস্ট এর পরামর্শ নেওয়া উচিত।  

খেলাধুলায় সোল্ডার বার্সাইটিসঃ

খেলাধুলায় বার্সাইটিস হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এটি  তীব্র আঘাতমূলক টাইপের আওতায় পড়ে। যদি একজন ক্রীড়াবিদ একটি শক্ত পৃষ্ঠে বারবার একটি প্রান্তকে ঘষে বা একই কাজ বারবার করে থকে তাহলে ঐ ব্যক্তির বা ক্রীড়াবিদের বার্সাইটিস হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। যেমন- ফুটবল এর খেলোয়াড়, কুস্তি এর খেলোয়াড় এবং বাস্কেটবল এর খেলোয়াড়  সহ অন্যান্য খেলোয়াড়। সুতরাং খেলাধুলায় বার্সাইটিস হতে পারে।

সোল্ডার বার্সাইটিসের ঝুঁকির কারণঃ

  • বাত বা গাউট।
  • ডায়াবেটিস
  • কিডনি রোগ বা ইউরেমিয়া (রক্তে বর্জ্য জমা হওয়া)
  • রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস
  • থাইরয়েড রোগ
  • এছাড়াও হাড়ের স্পার বা ক্যালসিফিক টেন্ডিনাইটিস।
  • স্থানচ্যুত কাঁধ
  • হিমায়িত কাঁধ বা প্রোজেন সোল্ডার
  • অস্টিওআর্থারাইটিস
  • রোটেটর কফ টিয়ার
  • শোল্ডার ইম্পিংমেন্ট সিন্ড্রোম

কখন সোল্ডার বার্সাইটিস এর কারনে ডাক্তার দেখাব?

  • কাঁধে বা বাহুতে ব্যথা বা আপনার হাতের নড়াচড়াকে বা মোভমেন্টকে  সীমিত করে দেয়, যা দৈনন্দিন জীবনের কাজের মধ্যে হস্তক্ষেপ করে।
  • ব্যথা যা বাড়িতে চিকিৎসার  মাধ্যমে উন্নত হয় না।
  • কাঁধ বা বাহুতে দুর্বলতা।
  • সংক্রমণের লক্ষণ, যেমন জ্বর এবং সর্দি।
  • কাঁধে অস্বাভাবিক লালভাব বা ফোলাভাব।

সোল্ডার বার্সাইটিস নির্ণয় করার কিছু সহায়ক পরীক্ষাঃ

  • এমআরআই
  • এক্স-রে
  • আল্ট্রাসাউন্ড

আরও পড়ুনঃ স্ট্রোক কি এবং এর প্রতিকার

সোল্ডার বার্সাইটিসের চিকিৎসা কি?

সোল্ডার বার্সাইটিসের চিকিৎসা আপনার বার্সাইটিসের ধরনের উপর নির্ভর করে। দীর্ঘস্থায়ী বার্সাইটিসের ক্রিয়াকলাপ হ্রাস বা মোভমেন্ট  হ্রাস করার মাধ্যমে চিকিৎসা  করা হয়, কিছু ক্ষেত্রে  যা ফোলা ভাব সৃষ্টি করে। কিছু ক্ষেত্রে, আক্রান্ত প্রান্তটিকে স্থির করারও প্রয়োজন হতে পারে। এই ধরনের বার্সাইটিসের চিকিৎসার ক্ষেত্রে  প্যাডিং রয়েছে এবং কয়েক সপ্তাহের জন্য প্রদাহ-বিরোধী ওষুধের (যেমন, আইবুপ্রোফেন, নেপ্রোসিন, সেলেব্রেক্স, ইত্যাদি) ব্যবহার করা যেতে পারে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী। ফোলা ভাব বা কাঁধ যদি ফুলে যায় তাহলে সেই ফুলা ভাব কমানোর জন্য প্রতিদিন দুই থেকে তিন বেলা ১৫ থেকে ২০ মিনিট করে আইসিং বা বরফ ব্যবহার করতে পারি। ফোলা না কমা পর্যন্ত  তাপ ব্যবহার করা যাবে না কারণ এটি প্রদাহ বাড়াবে।

বার্সার মধ্যে স্টেরয়েডের ইনজেকশন ফোলা এবং প্রদাহ দুটোই কমাতে পারে কিন্তু এতে কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ও দেখা যায়। যেমন- ত্বকের বা মাংশ পেশির অ্যাট্রোফি বা দীর্ঘস্থায়ী ব্যথা। তাই চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোন প্রকার স্টেরয়েড ইনজেকশন নেয়া যাবে না। সর্বপরি , বিশ্রাম নিতে হবে। সেই ক্ষেত্রে চিকিৎসক বা ফিজিওথেরাপিস্ট রোগীকে POLICE প্রোটোকল অনুসরণ করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন, যা Protection, Optimal Loading, Ice Compression, and Elevation এই বিষয় গুলোকে নির্দেশ করে থাকে।

সোল্ডার-বার্সাইটিস এর ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা

কিভাবে একজন ফিজিওথেরাপিস্ট আপনাকে সাহায্য করতে পারেন?

  • রেঞ্জ-অফ-মোশন ব্যায়াম
  • ম্যানুয়াল থেরাপি
  • পেশী শক্তিশালীকরণ থেরাপির মাধ্যমে
  • খেলাধুলার আগে পেশীগুলিকে ওয়ার্মিং আপ এবং খেলাধুলার শেষে পেশীগুলিকে কুলিং ডাউন করার মাধ্যমে
  • কার্যকরী প্রশিক্ষণ বা ট্রেইনিং এর মাধ্যমে

আরও পড়ুনঃ হেডেক বা মাথাব্যথা

সোল্ডার বার্সাইটিসের জন্য ননসার্জিক্যাল চিকিৎসাঃ

  • বয়স্ক মানুষ যাদের বয়স ৫০ থেকে ৬০ উর্ধে তাদের ক্ষেত্রে স্টেরয়েড ইনজেকশন কার্যকর ভূমিকা পালন করে।
  • ফিজিওথেরাপি এর শারীরিক থেরাপির ব্যায়াম বা থেরাপিউটিক এক্সারসাইজ, যা দুর্বল পেশী শক্তিশালী করার মাধ্যমে এবং  গতি বা মোভমেন্ট উন্নত করার মাধ্যমে।
  • অ্যান্টিবায়োটিক যা বার্সাইটিস সহায়ক ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ দূর করতে সাহায্য করে।

সোল্ডার বার্সাইটিসের জন্য অস্ত্রোপচারের চিকিৎসাঃ

যদি আপনার উপসর্গগুলি আরও খারাপ হতে থকে বা ননসার্জিক্যাল  চিকিৎসার মাধ্যমে উন্নতি না হয়, তাহলে আপনার স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীর পরামর্শে অস্ত্রোপচার এর মাধ্যমে  চিকিৎসা করতে পারেন। এই অস্ত্রোপচারটি আর্থ্রোস্কোপিক ভাবে করা হয়।

আপনি কিভাবে বাড়িতে  সোল্ডার বার্সাইটিস এর চিকিৎসা করতে পারেনঃ

  • সাময়িকভাবে হাতের ক্রিয়াকলাপ বন্ধ করে দেয়ার মাধ্যমে
  • প্রদাহ কমাতে আইস প্যাক ব্যবহারের মাধ্যমে
  • ব্যথা উপশমকারী ননস্টেরয়েডাল অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি ড্রাগস (NSAIDs), ব্যথা এবং ফোলা কমানোর জন্য ব্যবহারের মাধ্যমে।

সোল্ডার বার্সাইটিস প্রতিরোধের উপায়ঃ

  • নিয়মিত সোল্ডার স্ট্রেচিং এবং শক্তিশালী করার ব্যায়াম করুন।
  • কাজ করার আগে সোল্ডার ওয়ার্মিং আপ এবং কাজ করার শেষে কুলিং ডাউন করুন।
  • পুনরাবৃত্তিমূলক কার্যকলাপের সময় বিরতি নিন।
  • কাঁধ বা সোল্ডারের উপর চাপ কমাতে সোল্ডার প্যাডিং ব্যবহার করুন।

References:

Dr. Sapia Akter

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This field is required.

This field is required.

seven + 8 =

Call Now